Home / Science and Technology / কিছু বিচিত্র কিন্তু বাস্তব সত্য যা আপনাকে থমকে দিবে কিছু সময়ের জন্য!
, কিছু বিচিত্র কিন্তু বাস্তব সত্য যা আপনাকে থমকে দিবে কিছু সময়ের জন্য!, How Reply Inc
Thunder sky

কিছু বিচিত্র কিন্তু বাস্তব সত্য যা আপনাকে থমকে দিবে কিছু সময়ের জন্য!

বিজ্ঞান আমাদের এমন এক জায়গায় এনে দাড় করিয়েছে যেখান থেকে আপনি আর আমি খুব সহজে আর বেরোতে পারবো না। আদিম যুগে মানুষ যখন আগুন জ্বালানো শিখেছিলো তখন থেকে এখন পর্যন্ত যত কিছু এসেছে বা আসবে তার পিছনে কোনো না কোনো রহস্য থাকে বা ছিলো। আজ সেইসব রহস্য এর ব্যাখ্যা দিতে নয়, এই পোষ্টে কিছু বিচিত্র বাস্তব তুলে ধরার চেষ্টা করবো। তো চলুন শুরু করি আজকের আয়োজন।

বৃষ্টির সময় বজ্রপাতঃ

বৃষ্টির সময় যদি বজ্রপাত হয়, আর সেটি যদি আপনার উপর পড়ে তাহলে সেটি আপনার ত্বকে ২৭১০০ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত গরম হয়ে যাবে কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে। মানে সূর্য থেকে যেই তাপ নির্গত হয় তার থেকেও এটি ৫ গুন বেশী। তাহলে বুঝতে সমস্যা হচ্ছে না আপনার অবস্থা তখন কোন লেভেলে থাকবে! ভেবেও দেখতে যাবেন না। গা শিউরে উঠতে পারে।

 

হলুদ রঙের ক্ষমতাঃ

হলুদ এমন একটা রঙ যেটি মানুষের চোখ সবচেয়ে আগে সনাক্ত করতে সক্ষম। ১৯০৫ সালে ইউনিভার্সিটি অর শিকাগোর একদল বিজ্ঞানী বিষয়টি গবেষনা করে বের করে। তার পর থেকে ট্যাক্সিতে হলুদ রঙ ব্যবহারের প্রথা চালু হয়। আপনি জানলে অবাক হবেন যে, ইউটিউবও তাদের থাম্বনাইলে সর্বপ্রথম হলুদ রঙের ব্যবহার করেছিলো। বড় বড় কোম্পানীর লোগোতে আপনি হলুদ রঙ দেখতে পারবেন। এটি দ্বারা তারা মনে করে ক্রেতা আকর্ষণ করতে সক্ষম হবে!

শরীরের হাড়ের বিবর্তনঃ

মানুষ যখন জন্মায় তখন তার শরীরের অভ্যন্তরে হাড়ের সংখ্যা থাকে ৩৫০ টি। শুনতে অবাক লাগছে? অনেক বিজ্ঞানের শিক্ষার্থী আমাকে তিরস্কার করে পোষ্টটি ছেড়ে চলে যেতে পারেন। কিন্তু বাস্তব সত্য এটাই। কিন্তু আপনার জানায়ও ভুল নেই। আপনি যখন ১৮ বছর বয়সে পৌছে যান তখন এর সংখ্যা হয় ২০৬ টি। এখন প্রশ্ন আসতে পারে বাকি হাড় গুলো কোথায় গেলো?

উত্তর হলো আপনি যখন প্রাপ্তবয়স্ক হন তখন আপনার হাড়গুলো একটি আরেকটির সাথে জোড়া লেগে সেটির সংখ্যা হ্রাস পেয়ে ২০৬ টিতে পৌছায়। আর আমরা বইয়ে ২০৬ টা হাড়ই পড়েছি। এখন তো আর কোনো সন্দেহ থাকার কথা নয়। ব্যাপারটা অনেকেই জানেন না। তবে ব্যাপারটা সত্যিই খুব মজার!

কাতুকুতু দিয়ে দেখেন তো নিজেকেঃ

না, এই কাজটি আপনি কখনোই পারবেন না। আপনি নিজেকে কখনোই কাতুকুতু দিতে পারবেন না। অবার হলেন? চেষ্টা করে দেখুন পারেন কিনা।

কি পারলেন না তো। এবার আমি বলে দিচ্ছি কেন পারলেন না। আপনি যখন নিজেকে নিজে কাতুকুতু দিবেন তখন আপনার মস্তিস্ক আগে থেকেই বুঝে যায় আপনি আপনার শরীরের কোনো অঙ্গের সাথে কোনো কিছু করতে চাচ্ছেন। আর তখনি মস্তিস্ক সেই অনুভুতি নষ্ট করে দেয়। বিষয়টা মজার না?

অক্টোপাস নিয়ে ভাবনাঃ

কি ভাবছেন? আমি অক্টোপাসকে নিয়ে ভাবতে বলছি? জ্বী, ঠিক। ভাবুন তো অক্টোপাস কেনো অন্য জীব থেকে আলদা? বলতে পারছেন না? আমি কিছু ক্লু দেই। কিডনী, মস্তিস্ক আর রক্ত।

অক্টোপাস মানে আমরা বুঝি আট পা ওয়ালা একটা থলের আকৃতির জীব। কিন্তু এটা জানেন কি, ঐ আট পা আর চোখ বিশিষ্ট প্রানীর সবকিছুর মতো ভিতরের দিকেও বেশী বেশী?

বুজতে পারলেন না? আমি বলছি। অক্টোপাসের শুধু আটটি করে পা আর চোখই নেই, আছে তিনটি হৃদয়, নয়টি মস্তিস্ক! আপনি জানলে আরো অবাক হবেন যে অন্যান্য প্রানীর মতো এর রক্ত লাল বা সাদা নয়। এই প্রানীর রক্তের রঙ নীল!

পানির নিচে দম বন্ধ করার চ্যালেঞ্জঃ

টাইটেলটা উদ্ভট। লাগতেই পারে। কিন্তু উদ্ভট কিছুর মাঝে আরো কিছু রহস্য থাকে। ধরুন আপনাকে বলা হলো পানির নিচে আপনি দম বন্ধ করে থাকুন। আপনি কতক্ষন পারবেন? ১ মিনিট, ২ মিনিট, ৫ মিনিট বা সর্বোচ্চ ১০ মিনিট! কিন্তু আপনি জেনে অবাকই হবেন যে স্কোরপিয়ন নামক্ এক বিচ্ছু টানা ৬ দিন পানির নিচে দম বন্ধ করে থাকতে পারে!

১৩ মাসে বছরঃ

ভাবনা চলে আসতে পারে টাইম মেশিনের। কিন্তু না। পৃথিবীতে এমন সব দেশ রয়েছে যাদের কাজ সত্যিই অবাক করার মতোই। হ্যা, ঠিক তেমনি একটা মহাদেশ আফ্রিকা। সেখানে এমন একটা জায়গা রয়েছে যেখানে বছর হয় ১৩ মাসে!

তাহলে প্রশ্ন আসতে পারে, ১৩ মাসে বছর হলে সেইখানের সময় তো আমাদের সাধারণ সময়ের চেয়ে অনেক কম। হ্যা ঠিকই ধরেছেন। সেখানে এখনো ২০১১ সাল পার হয়নি। মানে তারা এখন আমাদের চেয়ে প্রায় ৮ বছর পিছিয়ে!

আজ আর কিছু লিখবো না। ইনশা-আল্লাহ যদি বেচে থাকি তাহলে এমন আরো বিষয় নিয়ে আলোচনা করার এবং নতুন কিছু নিজে জানা আর জানানোর কাজটা করে যাবো। সবাই আমার জন্যে দোয়া করবেন। ধন্যবাদ কষ্ট করে পুরোটা পড়ার জন্যে!

Check Also

, The Most Luxury Cars In The World [With Best Photos Of Cars], How Reply Inc

The Most Luxury Cars In The World [With Best Photos Of Cars]

Luxury Cars In The World – Luxury cars have actually constantly beautified publication covers as well …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *